Upcoming Events

No upcoming events.

লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জের তালিকা থেকে জিসিএমকে বাদ দেবার দাবিতে ফুলবড়ি দিবসে স্টক এক্সচেঞ্জে সমাবেশ ও বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত

ফুলবাড়ী দিবসের এক দশক উপলক্ষ্যে ব্রিটিশ কোম্পানী গ্লোবাল কোল ম্যানেজমেন্টকে (জিসিএম) স্টক এক্সচেঞ্জের তালিকা থেকে বাদ দেবার দাবিতে আজ ২৬শে আগষ্ট ২০১৬ লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। কুখ্যাত এশিয়া এনার্জি এখন নাম পরিবর্তন করে হয়েছে গ্লোবাল কোল ম্যানেজমেন্ট। উল্লেখ্য, ২০০৬ সালে সালের এই দিনে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে এক রক্তক্ষয়ী অভ্যুত্থান এবং পুলিশ বিডিআরের গুলিতে আলামীন, সালেকীন ও তারিকুলের জীবনদানের মধ্য দিয়ে সরকার চুক্তি বাতিল করতে বাধ্য হয় এবং এশিয়া এনার্জি ফুলবাড়ি থেকে বিতাড়িত হয়। ব্যাপক জনবসতি উচ্ছেদ, বিপুল পরিমাণ কৃষি জমি ও পরিবেশ-প্রকৃতি ধ্বংস করে ফুলবাড়িতে উন্মুক্ত

রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে লন্ডনে জনসংযোগে ও লিফলেট বিতরণ

সুন্দরবনবিনাশী কয়লাভিত্তিক রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে বাংলাদেশের তেল গ্যাস রক্ষা জাতীয় কমিটির চলমান আন্দোলনের সাথে সংহতি প্রকাশ করে আজ পূর্ব লন্ডনে গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। জাতীয় কমিটি যুক্তরাজ্য শাখার উদ্যোগে এই কার্যক্রম পরিচালিত হয়। লিফলেট বিতরণ ও জনসংযোগের সময় মানুষের কাছ থেকে ব্যাপক ইতিবাচক সাড়া পাওয়া গেছে। সুন্দরবন নিয়ে সাধারণ মানুষের উদ্বেগ আর উৎকন্ঠা ছিল লক্ষণীয়। তারা চলমান সুন্দরবন রক্ষা আন্দোলনের সাথে সংহতি প্রকাশ ও বাংলাদেশের জাতীয় স্বার্থ বিরোধী এই চুক্তি বাতিলের দাবি জানান।

London protest against Rampal power plant deal

It’s very shocking that the people’s urge to abandon the coal based power plant on the edge of the world’s biggest heritage-listed mangrove forest, Sundarbans is being ignored. The Government of Bangladesh has signed an agreement with India’s state run Bharat Heavy Electrical Ltd to implement the Rampal Power Plant.

The National Committee to Protect (NCP) Oil Gas and Mineral Resources in Bangladesh will march towards the Prime Minister’s Office on the 28th July 2016 in protest against the deal.

লন্ডনে সুন্দরবন অভিমুখে জনযাত্রার সমর্থনে সংহতি সভা অনুষ্ঠিত

সুন্দরবনের অদূরে রামপালে বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ উদ্যোগে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপনের প্রতিবাদে বাংলাদেশে তেল-গ্যাস রক্ষা জাতীয় কমিটির সুন্দরবন অভিমুখে জনযাত্রার সমর্থনে ১১ মার্চ লন্ডনে সংহতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সুন্দরবন রক্ষায় রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের জোর দাবি জানানো হয়। সভায় রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্পকে বন, পরিবেশ, প্রকৃতি ও প্রজাতি বিধ্বংসী হিসাবে আখ্যায়িত করে বলা হয় সরকার জনগণের কথায় কর্ণপাত না করে ক্ষমতার স্বার্থে ভারত তোষণ নীতির গ্রহণ করেছে। সভা থেকে যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ ও ভারতীয় দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন ও আন্তর্জাতিক জনমত সংগঠিত করার কর্মসূচি গৃহীত হয়।

লন্ডনে জিসিএমের বার্ষিক সাধারণ সভার সামনে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত

যুক্তরাজ্য ভিত্তিক কোল মাইনিং কোম্পানি গ্লোবাল কোল ম্যানেজমেন্টের (জিসিএম, সাবেক এশিয়া এনার্জি) বার্ষিক সাধারণ সভা চলাকালে সভার বাইরে বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলে দিনাজপুরের ফুলবাড়িতে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনের প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের তেলগ্যাস রক্ষা জাতীয় কমিটি যুক্তরাজ্য শাখার আহবানে ফুলবাড়ি সলিডারিটি কমিটি, লন্ডন মাইনিং নেটওয়ার্ক, সোস্যালিস্ট পার্টি ফর ইংল্যান্ড ও ওয়েলস সহ বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যক্তি এতে অংশ নেন। এ সময় তারা জিসিএমের বিরুদ্ধে নানা শ্লোগান সম্বলিত ব্যানার ও প্লাকার্ড প্রদর্শন করেন।

Join Action Demo in London to Save PHULBARI & Green-Farm Land, Friday, 18 December at 10:30am, 4 Hamilton Place, London W1J 7BQ, Nearest Tube Station: Hyde Park Corner

In the month of climate summit #COP21 when climate protests erupted across the globe seeking climate justice, a London-based AIM-listed multinational company, Global Coal Management Resources Plc. announced its AGM to discuss noxious deal to implement a massive open-pit coal mine by forcibly displacing 130,000 families of farmers in Phulbari. If the mine is built, it would destroy 14,600 hectares of highly cultivable land in Northwest Bangladesh. It also would pose threats to clean water resources and would leave devastative impact on one of the world’s largest mangrove forest and a UNESCO heritage, the Sundarbans.

লন্ডনে জিসিএমের বার্ষিক সভা ঘেরাও, প্রশ্নবাণে জর্জরিত, কোন সদুত্তরই মেলেনি জিসিএম থেকে।

লন্ডনে গ্লোবাল কোল ম্যানেজমেন্টের (জিসিএম) বার্ষিক সাধারণ সভা ঘেরাও হয়েছে ৯ ডিসেম্বর ২০১৪। ব্রিটেনের প্রচণ্ড শীতের সকালে ৩ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রা উপেক্ষা করে সকাল ১০.৩০ মিনিটে অভিজাত এলাকা হাইড পার্ক কর্নারের পাশে ৪ হ্যামিল প্যালেসের সামনে ফুলবাড়ী উন্মুক্ত কয়লা উত্তোলন প্রকল্পের প্রতিবাদে জড়ো হয় দৃঢ়প্রত্যয়ী বিপুলসংখ্যক প্রতিবাদকারী। শ্লোগানে শ্লোগানে জিসিএমের বিরুদ্ধে গগণবিদারী আওয়াজ তোলে বিক্ষোভকারীরা। বাংলাদেশের তেল গ্যাস খনিজসম্পদ রক্ষা কমিটি, যুক্তরাজ্য শাখার উদ্যোগে আয়োজিত এই প্রতিবাদে অংশ নেয় ওয়ার্ল্ড ডেভেলপমেন্ট মুভমেন্ট, লন্ডন মাইনিং নেটওয়ার্ক, স্যোস্যলিস্ট পার্টি অব ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস, ফুলবাড়ি সলিডারিটি গ্রুপ, ইলিং ট্রেড ইউনিয়িনস্ট এন্ড সোস্যালিস্ট কোয়ালিশন, অকুপাই লন্ডন, ফয়েল ভেডান্টা, ইউরোপিয়ান একশন গ্রুপ অন ক্লাইমেট চেইঞ্জ ইন বাংলাদেশ, স্বাধীনতা ট্রাস্ট্রসহ বিভিন্ন সংগঠন। সভার বাইরে শ্লোগান, বক্তব্য আর ড্রাম পিটিয়ে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হন প্রতিবাদকারীরা। বাইরের প্রতিবাদ সভার আওয়াজ সভার ভেতরের ফুলবাড়ী প্রকল্পে বিনিয়োগকারীদের কর্ণকুহরে প্রবেশ করাতে সক্ষম হন প্রতিবাদকারীরা। প্রায় ৩ ঘন্টা ভবনের মুল ফটক ঘেরাও করে রাখে প্রতিবাদ সমাবেশ। মুল ফটকে কয়লা ফেলে ডার্টি কোল মাইনারদের নোরা চেহারাটা তুলে ধরেন প্রতিবাদকারীরা। এক পর্যায়ে গ্যারি লাইয়ের গাড়ী পেয়ে ঘেরাও করে রাখেন তারা। জিসিএমের কর্মকর্তা ও বিনিয়োগকারী সভা শেষে বের হতে ইতস্তত বোধ করে দেরীতে বের হয়েও বিক্ষোভের মুখে পড়েন।

ফুলবাড়ীতে জনতার প্রতিরোধের মুখে জিসিএমের নির্বাহী গ্যারি লাই পুলিশ প্রহরায় পলিয়ে রক্ষা পেলো, লাইয়ের গ্রেফতার দাবি

ফুলবাড়ী বিরামপুর ঢাকা ও লন্ডনে বাংলাদেশের সম্পদ নিয়ে এশিয়া এনার্জির (জিসিএম) অপতৎপরতার প্রতিবাদে, এশিয়া এনার্জির প্রধান গ্যারী লাইসহ সহযোগী ব্যক্তিদের গ্রেফতার ও বিচার এবং রক্তে লেখা ফুলবাড়ী চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়নের দাবিতে তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ফুলবাড়ী শাখা এলাকার অন্যান্য সংগঠন ও জনপ্রতিনিধিসহ আজ দিনব্যাপী অবরোধ শেষে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি, প্রতি সপ্তাহে মিছিল সমাবেশ এবং আগামি ২৭ ডিসেম্বর সেখানে মহাসমাবেশ আহবান করেছে। এর সাথে সংহতি জানিয়ে আজ ঢাকায় জাতীয় কমিটির সমাবেশ থেকে আগামি ৩ ডিসেম্বর সারাদেশে একই দাবিতে বিক্ষোভ ও সমাবেশের কর্মসূচি দেয়া হয়েছে।

ফুলবাড়ীতে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলন প্রচেষ্টার প্রতিবাদে লন্ডনে জিসিএমের বার্ষিক সাধারণ সভার সামনে প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দিন। তারিখ: ৯ ডিসেম্বর, সময়: ১০:৩০ -১২টা, স্থান: ৪ হ্যামিলটন প্লেস, লন্ডন, W1J 7BQ

ফুলবাড়ীতে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলন প্রচেষ্টার প্রতিবাদে লন্ডনে জিসিএমের বার্ষিক সাধারণ সভার সামনে প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দিন। তারিখ: ৯ ডিসেম্বর, সময়: ১০:৩০ -১২টা, স্থান: ৪ হ্যামিলটন প্লেস, লন্ডন, W1J 7BQ, নিকটতম টিউব স্টেসন: হাইড পার্ক কর্নার

ব্রিটিশ কোম্পানি গ্লোবাল কোল ম্যানেজমেন্ট (জিসিএম)পিএলসি-র বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হবে ৯ ডিসেম্বর ২০১৪। ঐ দিন জিসিএমের বার্ষিক সাধারণ সভার সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নেবার জন্য আপনাদের অনুরোধ জানাচ্ছি।বাংলাদেশের দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে উর্বরতম ১৪,৬৬৬ একর কৃষি জমি স্থায়ীভাবে ধ্বংস করে, ২ লক্ষ মানুষকে বাস্তুচ্যুত করে, ৩৫ বছরব্যাপী অবিরাম পানি উত্তোলনের মাধ্যমে ঐ অঞ্চলের পানির স্তর ২০-২৫ মিটার নামিয়ে ফেলে, ২২০,০০০ মানুষের পানির উৎস ধ্বংস করে এবং বাংলাদেশের জন্য মাত্র ৬ শতাংশ উৎপাদন অংশীদারিত্বে উন্মুক্ত পদ্ধতির কয়লা উত্তোলন বাংলাদেশের জন্য কোন সুফল বয়ে আনবে না। ২০১২ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি জাতিসংঘ স্পেশাল রিপোর্টিয়ার্সগণ এক বিবৃতিতে লক্ষ লক্ষ মানুষকে বাস্তুচ্যুত করে মৌলিক মানবাধিকার লঙ্ঘন, পরিবেশ ও প্রকৃতি ধ্বংসর অভিযোগ তুলে অবিলম্বে ফুলবাড়ী কয়লা প্রকল্প বাতিলের জোর সুপারিশ করেন।

Surround GCM! Surround the Dirty Coal Miners! Join the Demo to Halt Devastating Phulbari Open Pit Coal Mine

Tuesday, 9 December 2014 at 10:30am-12 pm, Venue: 4 Hamilton Place, London, W1J 7BQ, Nearest Tube Station: Hyde Park Corner

Global Coal Management Resources Plc (GCM), an Alternative Investment Market (AIM) listed UK-based multinational company, is desperately moving to implement an immense open pit coal mine in Phulbari, northwest Bangladesh, forcibly displacing an estimated 130, 000 people and destroying homes, lands, and water sources of as many as 220,000 people. If the project is implemented, it will destroy over 14,660 acres of fertile agricultural land that produce three food crops annually, will increase hunger in the country. De-watering by extraction of ground water for coal mine, will lower water level in the region by 15-20 meter.The project will results in irreparable damage to the social and ecological spheres, which will have far more damaging impact than that of apparent profit output of coal.

The proposed production share distribution deal will pay 6% of royalty to Bangladesh and 94% revenue will be taken by GCM! Moreover, they will enjoy 9 years tax holiday to increase their profit further. Bangladesh will bear all the burdens, but will get almost nothing.