Upcoming Events

No upcoming events.

সম্পদ লুন্ঠন ও পাচার

প্রকৌশলী শেখ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ, আহ্বায়ক

আমাদের মত দরিদ্র ও দুর্বল দেশে সাম্রাজ্যবাদ ও বহুজাতিক কোম্পানীগুলি তাদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী ধনিক শ্রেনীর বিকাশ ঘটায় ও তাদের সহযোগিতায় দেশের জ্বালানী ও মূল্যবান প্রাকৃতিক সম্পদ লুন্ঠন ও পাচার করে। এভাবে তাদের নিজেদের জ্বালানী নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিক অগ্রগতি সাধন করে এবং লুন্ঠিত দেশের জ্বালানী ও অর্থনৈতিক নিরাপত্তা ধ্বংস করে। এই ধনিক শ্রেনীর বিভিন্ন অংশ বিভিন্ন সময়ে দেশের শাসনভার গ্রহন করে এবং সাম্রাজ্যবাদের জন্য দেশের জ্বালানী ও অন্যান্য মূল্যবান প্রাকৃতিক সম্পদ লুন্ঠনের এবং পাচারের দ্বার অবারিত করে দেয়। দেশে ভয়াবহ দুর্নীতি ও অপসংস্কৃতির জন্ম দেয়। যার ফলে দেশপ্রেমিক জাতীয় সম্পদ ও স্বার্থ-রক্ষাকারী শক্তির বিকাশ ও তাদের প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ কঠিন করে দেয়। আমাদের দেশেও সাম্রাজ্যবাদ ও দেশীয় ধনিক শ্রেনীর সরকারগণ একই খেলা খেলছে। স্বাধীনতার পর বিভিন্ন সরকারের আমলে বিভিন্ন চুক্তির মাধ্যমে দেশের সম্পদ লুন্ঠন ও পাচার হয়েছে, দরিদ্র জনসাধারণের দুভের্াগ অতিমাত্রায় বেড়েছে, গ্যাস ও বিদু্যৎ এর ভয়াবহ সংকট সৃষ্টি হয়েছে।

৭ দফা দাবী আদায়ে গণস্বাক্ষর/টিপসই


বর্তমান ও ভবিষ্যতের জন্য বাংলাদেশের জ্বালানি নিরাপত্তা বিধান, দ্রুত বিদ্যুৎ সংকট দূর করে কৃষি ও শিল্প প্রতিষ্ঠানসহ ঘরে ঘরে বিদ্যুতের নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ এবং জাতীয় সম্পদের উপর জনগণের কর্তৃত্ব নিশ্চিত করবার জন্য আমরা নিম্নস্বাক্ষরকারীগণ অবিলম্বে নীচের দাবিগুলো মেনে নেবার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি